মৃত্যুর পর?

এই মুহূর্তে আপনি বেঁচে আঁচেন; আপনি নিঃশ্বাস নিচ্ছেন; প্রতিদিনই কিছু খাচ্ছেন ও জল পান করছেন। আমরা চলাফেরা কর অথবা কাজ কর এবং ঘুমাই। হয়ত আমরা আরামে জীবন কাটাই অথবা কষ্টে থাকি। সূর্য উঠে আবার অস্ত যায়; কোথাও একটি শিশু জন্ম নিচ্ছে, কিন্তু আবার কোথাও প্রতিদিনই কেউ না কেউ মারা যাচ্ছে।

পুরো জীবনটাই একটা অস্থায়ী ব্যবস্থা

কিন্তু

মৃত্যুর পর আমি কোথায় জাই

যদিও আমি একজন নামমাত্র খ্রিষ্টীয়ানঃ

অথবা একজন মুসলমান, অথবা একজন হিন্দু,

অথবা একজন বৌদ্ধ, অথবা একজন ইহুদী,

অথবা অন্য কোন ধর্মের কেউ

অথবা কোন ধর্মে বীশ্বাস করি না।

অথাপি আমাদের এই অত্যন্ত প্রয়োজনীয় প্রশ্নের উত্তর ঠিক  করা করকার, কারণ পৃথিবীতে অল্পদিন থাকার পর, মানুষকে তার চিরকালের বাসস্থানে চলে যেতে হবে।

কিন্তু কোথায়?

কারনঃ যেখানে আপনাকে কবর হবে, সেখানে আপনার আত্নার কবর হবে না, অথবা আপনার শরীর যদি কোন বন্য পশু অথবা পাখি খেয়ে ফেলে, এটি আপনার আত্না খেতে পারে না, যদি আপনার শরীর শ্নশানে পুড়য়ে ফেলা হয়, আপনার আত্না পুড়ে ছাই না, অথবা আপনি যদি সাগরের অতল গভীরে ডুবে জীবন হারান, আপনার আত্না ডুবে যাবে না।

আপনার আত্না কখনও মরবে না

স্বর্গে ও পৃথিবীর ঈশ্বর বলেন,

“সমস্ত প্রাণ আমার”

আপনি যখন এই জগতে বেঁচে ছিলেন, তখন ভাল বা মন্দ যা-ই করেছেন,আপ্নার করা কাজের হিসাব মৃত্যুর পর ‘আপনাকে’ অর্থাৎ আপনার আত্নাকে দিতে হবে।

আমরা হয়ত দিশ্বাস্তভাবে উপাসনা করি।

আমরা হয়ত আমাদের করা খারাপ কাকের জন্য দুঃখিত হই।

আমরা হয়ত চুরি করা জিনিস ফিরিয়ে দিই।

নিশ্চয়ই এসব খুব দরকারী –

কিন্তু

আমরা আমাদের নিজ পাপের পায়শ্চিত্ত করতে পারি না।

স্বর্গের ঈশ্বর, সারা পৃথিবীর ধার্মিক বিচারক আপনার পাপ ও জীবন জানেন-, তাঁর কাছে কিছুই লুকানো নয়। আপনি, আপনার পাপ নিয়ে কখনও আগামী জগতের (স্বর্গের) পরমসুখ ও গৌরবের মধ্যে প্রবেশ করতে পারবেন না।

কিন্তু

এই একই স্বর্গের ঈশ্বর হলেন ভালবাসার ঈশ্বর। আপনার জীবন ও আত্না উদ্ধারের জন্য তিনি এক পথ প্রস্তুত করেছেন। আপনি যদি ঈশ্বরের কাছে প্রার্থনা করেন ও আপনার পাপ স্বীকার করেন, আপনাকে অনন্ত বিচারে ও নরকের আগুনে আভিশপ্ত করা হবে নাল ঈশ্বর তাঁর পুত্র যীশু খৃষ্টের মাধ্যমে আপনাকে ক্ষমা করবেন।

এই যিশু আপনার মন্দ কাজের জন্য শাস্তি পেয়েছেন এবং যদি আপনি এই যিশু ও একমাত্র প্রভুর কাছে উপাসনা ও প্রার্থনা করেন, তিনি আপনার জিবনে শান্তি দেবেন এবং মৃত্যুর পরে এক গৌরবময় জীবন দেবেন। কিন্তু এই যীশু-জিবন্ত ঈশ্বরের পুত্র, অবশ্যই প্রথমে আপনার ব্যক্তিগত উদ্ধারকর্তা হবেন। শুধুমাত্র তকনই আপনি আপনার আত্নার জন্য মহা আনন্দ ও সাত্বনার এক অনন্ত বাসস্থান নিশ্চিত করতে পারেন। কিন্তু হাই! যারা এই জীবনকালে যীশুর উদ্ধারকারী ভালবাসাকে গ্রহন করে নাই, তাদের জন্য কঠিন বিচার ও অনন্ত আগুন অপেক্ষা করেছে। মৃত্যুর পর কিছুতেই মন ফিরানো যাবে না ও রক্ষা পাওয়া যাবে না। “পরে তিনি তাঁর বাঁ দিকের লোকদের বলবেন, “ওহে অভিশপ্ত লোকেরা আমার কাছ থেকে তোমরা দূর হও। সয়তান ও তার দূতদের জন্য যে চিরকালের আগুন প্রস্তুত করা হয়েছে তার মধ্যে যাও।“ (মথি ২৫:৪১ পদ)। “ঐ অপদার্থ দাসকে তোমরা বাইরের অন্ধকারে ফেলে দাও; সেখানে লোকে কান্নাকাটি করবে আর যন্ত্রণায় দাঁতে দাঁত ঘষতে থাকবে।“ (মথি ২৫:৩০ পদ)।

পবিত্র বাইবেলে ঈশ্বর পৃথিবীতে আগত শেষ বিচারের বিষয়ে অনেকার সতর্ক করেছেন। এই পবিত্র বাক্যগুলিতে এই বিষয়ে ভবিষ্যতবাণী বলা হয়েছে যে, স্নরনীয় বিচারের দিনের পূর্বে সুস্পষ্টভাবে বোঝা যাবে ও বাইবেলে লিখীত চিনহ্ন দেখা যাবে।

যীশু আসার আগে জুদ্ধ হবে ও জুদ্ধের কলরব, দুর্দ্দশা ও জাতিদের মধ্যে জটিলতা দেখা দেবে-তা হল, এক জাতি অন্য জাতির বিপক্ষে যুদ্ধ করবেন- এবং মনোভাব ও মতের বিভেদ মেটাবার কোন পথ খুঁজে পাবে না।

বিভিন্ন জায়গায় ভূমিকস্প হবে ও মহামারী দেখা দেবে। সম্প্রতি বছরগুলিতে এইগুলি প্রচুর পরিমাণে ঘটছে। বাইবেলে আগেই বলা হয়েছে, মন্দ লোকেরা আরও মন্দ হতে থাকবে।। এই আগেই বলা হয়েছে, মন্দ লোকেরা আরও মন্দ হতে থাকবে। এই সময়ে লোকেরা সাবধান হবে না কিন্তু ঈশ্বরকে ভালবাসার চেয়ে বরং আমোদ-প্রমোদ করতেই বেশী ভালবাসবে। বাইবেলে পড়ুন, (মাথি ২৪:৬, ৭, ও ১২ পদ)।

আসুন, মনে রাখি যে আমাদের ন্যায় ও মহান বিচারক ঈশ্বর আমাদের বর্তমান সম্পদ অথবা দারিদ্র্যতা, সুনাম অথবা অসম্নান, রং, কুল, জাতি অথবা ধর্মমতের দ্বারা প্রভাবিত হবেন না। একদিন আমরা আমাদের মহান সৃষ্টিকর্তা ও প্রভুর দ্বারা আমাদের করা কাজের কারণে বিচারিত হওয়ার জন্য, তাঁর সামনে দাঁড়াব। বাইবেলে পড়ুন, (মাথি ২৫:৩২, ৩৩ পদ)।

সীমাহীন অনন্তকালে কোন ঘড়ি থাকবে না, থাকবে নাকোন বার্ষিক দিনপঞ্জিকা ও শতাব্দীর হিসাব।

পাপী ও অবিশ্বাসীদের যন্ত্রণার ধুয়া চিরকাল উপরে উঠতে থাকবে-একই সময়ে উদ্ধারপ্রাপ্তরা স্বর্গে সীমাহীন আনন্দ করবে, গান গাইবে, পরমসুখে, ও আরামে থাকবে।

আপনি একনই পছন্দ করুন! তা না হলে হয়ত বেশী দেরী হয়ে যাবে। “দেখ, এখনই উপযুক্ত সময় আজই উদ্ধার পাবার দিন।“ বাইবেলে পড়ন, (২ করিন্থীয় ৬:২ খ পদ এবং মথি ১১:২৮-৩০ পদ)।